সুরা আদিয়াত

بِسمِ اللَّهِ الرَّحمٰنِ الرَّحيمِ

শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু

[1] وَالعٰدِيٰتِ ضَبحًا

[1] শপথ উর্ধ্বশ্বাসে চলমান অশ্বসমূহের,

[1] By the (steeds) that run, with panting.


[2] فَالمورِيٰتِ قَدحًا

[2] অতঃপর ক্ষুরাঘাতে অগ্নিবিচ্ছুরক অশ্বসমূহের

[2] Striking sparks of fire (by their hooves),


[3] فَالمُغيرٰتِ صُبحًا

[3] অতঃপর প্রভাতকালে আক্রমণকারী অশ্বসমূহের

[3] And scouring to the raid at dawn.


[4] فَأَثَرنَ بِهِ نَقعًا

[4] ও যারা সে সময়ে ধুলি উৎক্ষিপ্ত করে

[4] And raise the dust in clouds the while,


[5] فَوَسَطنَ بِهِ جَمعًا

[5] অতঃপর যারা শক্রদলের অভ্যন্তরে ঢুকে পড়ে-

[5] Penetrating forthwith as one into the midst (of the foe);


[6] إِنَّ الإِنسٰنَ لِرَبِّهِ لَكَنودٌ

[6] নিশ্চয় মানুষ তার পালনকর্তার প্রতি অকৃতজ্ঞ।

[6] Verily, man (disbeliever) is ungrateful to his Lord;


[7] وَإِنَّهُ عَلىٰ ذٰلِكَ لَشَهيدٌ

[7] এবং সে অবশ্য এ বিষয়ে অবহিত

[7] And to that he bears witness (by his deeds);


[8] وَإِنَّهُ لِحُبِّ الخَيرِ لَشَديدٌ

[8] এবং সে নিশ্চিতই ধন-সম্পদের ভালবাসায় মত্ত।

[8] And verily, he is violent in the love of wealth


[9] ۞ أَفَلا يَعلَمُ إِذا بُعثِرَ ما فِى القُبورِ

[9] সে কি জানে না, যখন কবরে যা আছে, তা উত্থিত হবে

[9] Knows he not that when the contents of the graves are poured forth (all mankind is resurrected)?


[10] وَحُصِّلَ ما فِى الصُّدورِ

[10] এবং অন্তরে যা আছে, তা অর্জন করা হবে?

[10] And that which is in the breasts (of men) is made known?


[11] إِنَّ رَبَّهُم بِهِم يَومَئِذٍ لَخَبيرٌ

[11] সেদিন তাদের কি হবে, সে সম্পর্কে তাদের পালনকর্তা সবিশেষ জ্ঞাত।

[11] Verily, that Day (i.e. the Day of Resurrection) their Lord will be Well-Acquainted with them (as to their deeds and will reward them for their deeds).

Sura Fatiha

بِسمِ اللَّهِ الرَّحمٰنِ الرَّحيمِ

শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু

[1] بِسمِ اللَّهِ الرَّحمٰنِ الرَّحيمِ

[1] শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।

[1] In the name of Allah, the Beneficent, the Merciful.


[2] الحَمدُ لِلَّهِ رَبِّ العٰلَمينَ

[2] যাবতীয় প্রশংসা আল্লাহ তা’আলার যিনি সকল সৃষ্টি জগতের পালনকর্তা।

[2] All the praises and thanks be to Allah, the Lord of the ‘Âlamîn (mankind, jinn and all that exists).


[3] الرَّحمٰنِ الرَّحيمِ

[3] যিনি নিতান্ত মেহেরবান ও দয়ালু।

[3] The Most Gracious, the Most Merciful


[4] مٰلِكِ يَومِ الدّينِ

[4] যিনি বিচার দিনের মালিক।

[4] The Only Owner (and the Only Ruling Judge) of the Day of Recompense (i.e. the Day of Resurrection)


[5] إِيّاكَ نَعبُدُ وَإِيّاكَ نَستَعينُ

[5] আমরা একমাত্র তোমারই ইবাদত করি এবং শুধুমাত্র তোমারই সাহায্য প্রার্থনা করি।

[5] You (Alone) we worship, and You (Alone) we ask for help (for each and everything).


[6] اهدِنَا الصِّرٰطَ المُستَقيمَ

[6] আমাদেরকে সরল পথ দেখাও,

[6] Guide us to the Straight Way.


[7] صِرٰطَ الَّذينَ أَنعَمتَ عَلَيهِم غَيرِ المَغضوبِ عَلَيهِم وَلَا الضّالّينَ

[7] সে সমস্ত লোকের পথ, যাদেরকে তুমি নেয়ামত দান করেছ। তাদের পথ নয়, যাদের প্রতি তোমার গজব নাযিল হয়েছে এবং যারা পথভ্রষ্ট হয়েছে।

[7] The Way of those on whom You have bestowed Your Grace, not (the way) of those who earned Your Anger (such as the Jews), nor of those who went astray (such as the Christians).

sura kuris

بِسمِ اللَّهِ الرَّحمٰنِ الرَّحيمِ

শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু

[1] لِإيلٰفِ قُرَيشٍ

[1] কোরাইশের আসক্তির কারণে,

[1] (It is a great Grace and protection from Allâh), for the taming of the Quraish,

[2] إۦلٰفِهِم رِحلَةَ الشِّتاءِ وَالصَّيفِ

[2] আসক্তির কারণে তাদের শীত ও গ্রীষ্মকালীন সফরের।

[2] (And with all those Allâh’s Grace and Protections for their taming, We cause) the (Quraish) caravans to set forth safe in winter (to the south), and in summer (to the north without any fear),

[3] فَليَعبُدوا رَبَّ هٰذَا البَيتِ

[3] অতএব তারা যেন এবাদত করে এই ঘরের পালনকর্তার

[3] So let them worship (Allâh) the Lord of this House (the Ka’bah in Makkah).

[4] الَّذى أَطعَمَهُم مِن جوعٍ وَءامَنَهُم مِن خَوفٍ

[4] যিনি তাদেরকে ক্ষুধায় আহার দিয়েছেন এবং যুদ্ধভীতি থেকে তাদেরকে নিরাপদ করেছেন।

[4] (He) Who has fed them against hunger, and has made them safe from fear.

Mum in Person

بِسمِ اللَّهِ الرَّحمٰنِ الرَّحيمِ

শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু

[1] قَد أَفلَحَ المُؤمِنونَ

[1] মুমিনগণ সফলকাম হয়ে গেছে,

[1] Successful indeed are the believers.


[2] الَّذينَ هُم فى صَلاتِهِم خٰشِعونَ

[2] যারা নিজেদের নামাযে বিনয়-নম্র;

[2] Those who offer their Salât (prayers) with all solemnity and full submissiveness.


[3] وَالَّذينَ هُم عَنِ اللَّغوِ مُعرِضونَ

[3] যারা অনর্থক কথা-বার্তায় নির্লিপ্ত,

[3] And those who turn away from Al-Laghw (dirty, false, evil vain talk, falsehood, and all that Allâh has forbidden).


[4] وَالَّذينَ هُم لِلزَّكوٰةِ فٰعِلونَ

[4] যারা যাকাত দান করে থাকে

[4] And those who pay the Zakât.


[5] وَالَّذينَ هُم لِفُروجِهِم حٰفِظونَ

[5] এবং যারা নিজেদের যৌনাঙ্গকে সংযত রাখে।

[5] And those who guard their chastity (i.e. private parts, from illegal sexual acts).


[6] إِلّا عَلىٰ أَزوٰجِهِم أَو ما مَلَكَت أَيمٰنُهُم فَإِنَّهُم غَيرُ مَلومينَ

[6] তবে তাদের স্ত্রী ও মালিকানাভুক্ত দাসীদের ক্ষেত্রে সংযত না রাখলে তারা তিরস্কৃত হবে না।

[6] Except from their wives or (slaves) that their right hands possess, – for then, they are free from blame;


[7] فَمَنِ ابتَغىٰ وَراءَ ذٰلِكَ فَأُولٰئِكَ هُمُ العادونَ

[7] অতঃপর কেউ এদেরকে ছাড়া অন্যকে কামনা করলে তারা সীমালংঘনকারী হবে।

[7] But whoever seeks beyond that, then those are the transgressors;


[8] وَالَّذينَ هُم لِأَمٰنٰتِهِم وَعَهدِهِم رٰعونَ

[8] এবং যারা আমানত ও অঙ্গীকার সম্পর্কে হুশিয়ার থাকে।

[8] Those who are faithfully true to their Amanât (all the duties which Allâh has ordained, honesty, moral responsibility and trusts) and to their covenants;


[9] وَالَّذينَ هُم عَلىٰ صَلَوٰتِهِم يُحافِظونَ

[9] এবং যারা তাদের নামাযসমূহের খবর রাখে।

[9] And those who strictly guard their (five compulsory congregational) Salawât (prayers) (at their fixed stated hours).


[10] أُولٰئِكَ هُمُ الوٰرِثونَ

[10] তারাই উত্তরাধিকার লাভ করবে।

[10] These are indeed the inheritors.


[11] الَّذينَ يَرِثونَ الفِردَوسَ هُم فيها خٰلِدونَ

[11] তারা শীতল ছায়াময় উদ্যানের উত্তরাধিকার লাভ করবে। তারা তাতে চিরকাল থাকবে।

[11] Who shall inherit the Firdaus (Paradise). They shall dwell therein forever.


Sura Kafirun

بِسمِ اللَّهِ الرَّحمٰنِ الرَّحيمِ

শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু

[1] قُل يٰأَيُّهَا الكٰفِرونَ

[1] বলুন, হে কাফেরকূল,

[1] Say (O Muhammad (SAW) to these Mushrikûn and Kâfirûn): “O Al-Kâfirûn (disbelievers in Allâh, in His Oneness, in His Angels, in His Books, in His Messengers, in the Day of Resurrection, and in Al-Qadar)!


[2] لا أَعبُدُ ما تَعبُدونَ

[2] আমি এবাদত করিনা, তোমরা যার এবাদত কর।

[2] “I worship not that which you worship,


[3] وَلا أَنتُم عٰبِدونَ ما أَعبُدُ

[3] এবং তোমরাও এবাদতকারী নও, যার এবাদত আমি করি

[3] “Nor will you worship that which I worship.


[4] وَلا أَنا۠ عابِدٌ ما عَبَدتُم

[4] এবং আমি এবাদতকারী নই, যার এবাদত তোমরা কর।

[4] “And I shall not worship that which you are worshipping.


[5] وَلا أَنتُم عٰبِدونَ ما أَعبُدُ

[5] তোমরা এবাদতকারী নও, যার এবাদত আমি করি।

[5] “Nor will you worship that which I worship.


[6] لَكُم دينُكُم وَلِىَ دينِ

[6] তোমাদের কর্ম ও কর্মফল তোমাদের জন্যে এবং আমার কর্ম ও কর্মফল আমার জন্যে।

[6] “To you be your religion, and to me my religion (Islâmic Monotheism).”

Sura Fil

بِسمِ اللَّهِ الرَّحمٰنِ الرَّحيمِ

শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু

[1] أَلَم تَرَ كَيفَ فَعَلَ رَبُّكَ بِأَصحٰبِ الفيلِ

[1] আপনি কি দেখেননি আপনার পালনকর্তা হস্তীবাহিনীর সাথে কিরূপ ব্যবহার করেছেন?

[1] Have you (O Muhammad (SAW)) not seen how your Lord dealt with the Owners of the Elephant? [The elephant army which came from Yemen under the command of Abrahah Al-Ashram intending to destroy the Ka’bah at Makkah].


[2] أَلَم يَجعَل كَيدَهُم فى تَضليلٍ

[2] তিনি কি তাদের চক্রান্ত নস্যাৎ করে দেননি?

[2] Did He not make their plot go astray?


[3] وَأَرسَلَ عَلَيهِم طَيرًا أَبابيلَ

[3] তিনি তাদের উপর প্রেরণ করেছেন ঝাঁকে ঝাঁকে পাখী,

[3] And He sent against them birds, in flocks,


[4] تَرميهِم بِحِجارَةٍ مِن سِجّيلٍ

[4] যারা তাদের উপর পাথরের কংকর নিক্ষেপ করছিল।

[4] Striking them with stones of Sijjîl (baked clay).


[5] فَجَعَلَهُم كَعَصفٍ مَأكولٍ

[5] অতঃপর তিনি তাদেরকে ভক্ষিত তৃণসদৃশ করে দেন।

[5] And He made them like (an empty field of) stalks (of which the corn has been eaten up by cattle).